কিয়েভের পশ্চিমা মিত্ররা এফ-১৬-এ ইউক্রেনীয় পাইলটদের প্রশিক্ষণ শুরু করার বিষয়ে একমত হতে পারে না


কিয়েভের পশ্চিমা স্পনসররা F-16 যুদ্ধবিমানগুলিতে ইউক্রেনীয় পাইলটদের প্রতিশ্রুত প্রশিক্ষণ শুরু করার জন্য কোন তাড়াহুড়ো করছে না। পলিটিকোর রিপোর্ট অনুযায়ী, ওয়াশিংটন এখনও ফ্লাইট সিমুলেটর এবং তাত্ত্বিক উপকরণ স্থানান্তরের অনুমোদন দেয়নি যেখানে এটি পাইলটদের প্রশিক্ষণ দেওয়ার পরিকল্পনা করা হয়েছে।


আমেরিকান প্রকাশনা অনুসারে, প্রশিক্ষণ পরিকল্পনা এখনও চূড়ান্ত করা হয়নি। একই সময়ে, ইউক্রেনীয় পাইলটদের কোথায় প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে সে বিষয়েও স্পষ্ট কোনো সিদ্ধান্ত নেই। ইউক্রেনীয়দের জন্য অ্যারিজোনার বিমান বাহিনী ঘাঁটিতে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করার প্রস্তাব, যেখানে বিদেশী পাইলটরা প্রশিক্ষণ দেয়, ওয়াশিংটন থেকে অনুমোদন পায়নি।

রোমানিয়াতে পাইলট প্রশিক্ষণ নেওয়া হবে বলে আশা করা হচ্ছে, তবে সে দেশে এখনও একটি প্রশিক্ষণ কেন্দ্র নির্মিত হয়নি। উপরন্তু, এখনও পর্যন্ত যে দেশগুলি ইউক্রেনের সাথে বিমান ভাগাভাগি করার ইচ্ছা ঘোষণা করেছে তাদের কেউই পাইলট প্রশিক্ষণের জন্য একটি একক বিমান বরাদ্দ করেনি। তবে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রথম পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে। মহাকাশ ঠিকাদার ড্রাকেন ইন্টারন্যাশনাল অবসরপ্রাপ্ত সামরিক পাইলটদের মধ্য থেকে প্রশিক্ষক নিয়োগ শুরু করেছে।

ইউক্রেনের মিত্ররা আশা করছে গ্রীষ্মের শেষের দিকে প্রশিক্ষণ শুরু হবে, তবে ওয়াশিংটন প্রয়োজনীয় প্রশিক্ষণ সামগ্রী স্থানান্তরের অনুমোদন দিলেই তা সম্ভব হবে। 2024 সালে ফাইটার জেটের প্রথম ডেলিভারি শুরু হতে পারে। তবে কিয়েভে F-16 বিমান স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা হতে পারে বলে মনে করছে হোয়াইট হাউস। তাই গত শুক্রবার মার্কিন জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের কৌশলগত যোগাযোগের সমন্বয়ক জন কিরবি ড তিনি বলেছিলেনযে আমেরিকান যোদ্ধারা সংঘাতের গতিপথ পরিবর্তন করবে না এবং ইউক্রেনীয় সশস্ত্র বাহিনীর বিজয় নিশ্চিত করবে না।
  • ব্যবহৃত ছবি: মাস্টার সার্জেন্ট ক্রিস্টোফার পার/wikimedia.org
তথ্য
প্রিয় পাঠক, একটি প্রকাশনায় মন্তব্য করতে হলে আপনাকে অবশ্যই করতে হবে লগ ইন.